শুরু হচ্ছে শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ - এসএলপিএল। দল পাচ্ছেন তামিম-মুশফিকরা

সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পাশাপাশি বিপিএল, আইপিএল, বিগ ব্যাশ, কিংবা সিপিএল সবগুলো আসরেই দর্শকের চাহিদা থাকে অনেক বেশি। শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ এসএলপিএল দর্শকদের ভিড় কম নয়। কিন্তু, নিয়মিত আয়োজন হয়না শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ। 2011 ও 2012 সালে শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করা হয়েছিল।

এরই মধ্যে স্থগিত করা হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার মধ্যকার টেস্ট সিরিজটি। সারাবিশ্ব করোনার মহামারীতে ক্রিকেটে ফিরতে পারছে না। শ্রীলংকা ও এর ব্যতিক্রম নয়। যদিও সারা বিশ্বের মতো শ্রীলঙ্কা এতো করোনা আক্রান্ত নয়। শ্রীলঙ্কাতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সংখ্যা একেবারেই কম।

করোনা ভাইরাসের মহামারীতে ক্রিকেটারদের ফিটনেস ঠিক রাখতে আবারো শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। বরাবরের মতো এবারের আসরেও থাকবে বিদেশি ক্রিকেটারদের ভিড়। প্রতিটা দলে অত্যন্ত 6 জন করে বিদেশি খেলোয়ার দেখা যাবে। প্রত্যেক ম্যাচে খেলতে পারবে চারজন করে বিদেশি খেলোয়ার।


বিশ্বকাপজয়ী এশিয়ার পরাশক্তি ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কা। ছোট এই দেশে ক্রিকেট একটু বেশি জনপ্রিয়তা পায়। তাই বাংলাদেশ পাকিস্তান ও ভারতের মতো তারাও আয়োজিত করে থাকে তাদের প্রিমিয়ার লিগ। কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরে তারা এই প্রিমিয়ার লীগ স্থগিত রেখেছে। এবার তা চালু করার কথা ভাবছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড।

2011 ও 2012 শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ আসরে বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের উল্লেখযোগ্য।  প্রায় প্রতিটা দলেই ছিল বাংলাদেশী ক্রিকেটার। ব্যাটিং এবং বোলিংয়ে এসএলপিএল এ  বিপিএলের মতোই দেখা যেত বাংলাদেশী ক্রিকেটার। আটই আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ - এসএলপিএল।

দেশি-বিদেশি সব ক্রিকেটারদের নিয়ে আসর সাজাবে শ্রীলংকা। প্রতিটা ম্যাচে বিদেশি চারজন এবং শ্রীলংকান সাতজন থাকবে। তবে, ৬জন পর্যন্ত বিদেশি খেলোয়ার স্কোয়াডে রাখতে পারবে প্রত্যেকটা দল। আইপিএল বিপিএল এর মত জমজমাট হবে শ্রীলংকান  প্রিমিয়ার লিগ - এসএলপিএল।

বরাবরের মতো এবারও, আইপিএল বিপিএল এর মত নিলামের মাধ্যমে খেলোয়ারদের কিনতে পারবে ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলো। সেই তালিকায় থাকতে পারেন মুশফিক তামিম মাহমুদুল্লাহ। গত আসরগুলোতে বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের বিয়ের উল্লেখযোগ্য। বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের দিয়েই তাদের পূর্বের আসরগুলো সাজিয়েছিল শ্রীলংকা।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কম হওয়ায় এবং ক্রিকেটারদের ফিটনেস ধরে রাখতে বিভিন্নভাবে ক্রিকেটে ফিরতে চেষ্টা করছে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল। কিন্তু বাংলাদেশ ও অন্যান্য টিম গুলো তাদের সাথে সিরিজ খেলতে চাচ্ছে না। কারণ, সারা বিশ্ব এখন করোনা মহামারীতে আক্রান্ত। উপায় না পেয়ে নিজের দেশের প্রিমিয়ার লীগ আবারও আয়োজন করছে তারা।

তো দর্শক আপনি কি মনে করেন? শ্রীলংকার ক্রিকেটে ফেরা নিয়ে! কমেন্ট করুন পোষ্টের  কমেন্ট বক্সে। আর হ্যাঁ খেলাধুলার সব খবরা খবর নিয়মিত পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ ইউটিউব চ্যানেল এবং ওয়েবসাইটটির সাথেই থাকুন।
ক্লিক করুন 👉Facebook Page 👉Youtube Channel

No comments

Powered by Blogger.